হোম হজ্ হজ ব্যবস্থাপনাকে সুন্দর করতে সবই করা হবে : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

হজ ব্যবস্থাপনাকে সুন্দর করতে সবই করা হবে : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

2
0

হজ ব্যবস্থাপনাবিষয়ক প্রশিক্ষণ ও মতবিনিময়

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ শেখ মো: আব্দুল্লাহ বলেছেন, চলতি বছরের হজ ব্যবস্থাপনাকে সুন্দর ও সুষ্ঠু করার জন্য যা যা প্রয়োজন সবই করা হবে। এক্ষেত্রে হজ এজেন্সিগুলো যেসব সমস্যার ব্যাপারে মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে তা নিয়ে আলাপ আলোচনা করে ন্যায্য হলে সমাধান করা হবে। এ বছর যাতে দুর্ভোগের কারণে হজযাত্রীদের চোখে পানি না আসে এবং ইহরামের কাপড় পরে হাজীদের যাতে রাস্তায় ঘুরতে না হয় সে ব্যবস্থা করা হবে। ধর্ম মন্ত্রণালয় আয়োজিত হজ ব্যবস্থাপনাবিষয়ক প্রশিক্ষণ ও মতবিনিময় সভায় গতকাল প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে বেসরকারি হজ এজেন্সিগুলোর গাইড ও মোনাজ্জেমদের জন্য আয়োজিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্মসচিব আনিছুর রহমান। বক্তব্য রাখেন হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-এর (হাব) সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম, হাবের সিনিয়র সহসভাপতি মাওলানা ইয়াকুব শরাফতী, মহাসচিব ফারুক আহমেদ সরদার, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা ফজলুর রহমান প্রমুখ। এছাড়া ধর্ম মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা প্রশিক্ষণ প্রদান করেন। ইফতারপূর্ব মতবিনিময় সভায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বক্তব্য রাখেন।
তিনি বলেন, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নেয়ার পর প্রথম তাবলিগ জামাতের ইজতেমাকেন্দ্রিক সমস্যার সমাধান করার বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়েছে। আল্লাহর মেহেরবাণীতে নিয়ত শুদ্ধ থাকার কারণে সেখানে সফল হয়েছিল। এরপর হজের কাজ এসে যায়। সৌদি আরব গিয়ে হজ ব্যবস্থাপনার বিষয়ে সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রীর সাথে বৈঠক করে বেশ কিছু দাবি আদায় করতে সক্ষম হই। হজযাত্রীর এজেন্সি কোটা ১৫০ থেকে কমিয়ে ১০০ জনে আনা, হজযাত্রীদের জন্য প্রি- ডিপার্টচার ইমিগ্রেশনের ব্যবস্থা তার মধ্যে অন্যতম। তিনি বলেন, বাংলাদেশের হজযাত্রীর কোটা আরো ২০ হাজার বৃদ্ধির বিষয়ও সৌদি সরকারের বিবেচনাধীন রয়েছে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, আজকে এজেন্সিগুলো যেসব সমস্যার কথা বলেছে তার মধ্যে যেগুলো ন্যায্য সেগুলো বিবেচনা করা হবে। তিনি এ বছরের হজ অত্যন্ত সুন্দর করার জন্য বেসরকারি হজ এজেন্সিগুলোর সহযোগিতা কামনা করেন।
হাব সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর আন্তরিক প্রচেষ্টায় ইতোমধ্যেই এজেন্সিগুলোর অনেক দাবিই পূরণ হয়েছে। হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া ১০ হাজার টাকা কমানোর কৃতিত্ব ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর। আমরা চাইব ভাড়া আরো কমানোর উদ্যোগ নেয়া হবে এবং বিমান ও সৌদি এয়ারের বাইরে অন্য এয়ারলাইন্সের মাধ্যমে হজযাত্রী পরিবহনের ব্যবস্থা করে হজযাত্রী পরিবহনকে আরো সাশ্রয়ী ও সহজ করা হবে। হাব মহাসচিব মোনাজ্জিমদের জন্য বারকোর্ড ভিসা এ বছরের জন্য হলেও বহাল রাখার চেষ্টা করার জন্য ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানান। একই সাথে হজযাত্রী প্রতি নিবন্ধন ফি ২ হাজার টাকা না নেয়ার জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেয়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, আশা করি এ টাকাটা নেয়া হবে না। এতে এজেন্সিগুলো ব্যবসায়িকভাবে লাভবান হবে।
সভাপতির বক্তব্যে ধর্মসচিব হজ এজেন্সিগুলোকে দ্রুত বিমানের টিকিট করা ও ৩০ রমজানের মধ্যে বাড়ি ভাড়া সম্পন্ন করার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, বিমানের এবারের হজ প্যাকেজ ৪৫ দিনের বেশি হবে না। সৌদি এয়ারও সেভাবে প্যাকেজ করবে।
এর আগে বেসরকারি এজেন্সির হজগাইড ও মোনাজ্জিমদের দুপুর থেকে হজ ব্যবস্থাপনা বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here